পাঁচ বছরে সম্পত্তি বৃদ্ধি ৫২শতাংশ মোদির

advertisement

ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি শুক্রবার মনোনয়ন পেশ করেছেন। বারাণসী কেন্দ্রের বিজেপি প্রার্থী মোদি মনোনয়নপত্রে তাঁর ব্যক্তিগত যাবতীয় তথ্য উল্লেখ করেন। সেই তথ্য অনুযায়ী, ২০১৪ সালের পর থেকে প্রায় ৫২ শতাংশ সম্পত্তি বৃদ্ধি হয়েছে তাঁর।

বর্তমানে নরেন্দ্র মোদির মোটসম্পদের পরিমাণ ভারতীয় মুদ্রায় ২.৫১ কোটি টাকা। ২০১৪সালে হলফনামা অনুযায়ী, তাঁর মোট সম্পত্তির পরিমাণ ছিল ১.৬৫ কোটি টাকা।

২০১৪ সালে নরেন্দ্র মোদির অস্থাবর সম্পত্তির পরিমাণ ছিল ৫১লক্ষ টাকা, চলতি বছরে মনোনয়নপত্র দাখিলের তথ্য অনুযায়ী, তাঁর অস্থাবর সম্পত্তির পরিমাণ প্রায় ১.৪১ কোটি টাকা। এছাড়াও তাঁর স্থাবর সম্পত্তির পরিমাণ ১ কোটি ১০ লক্ষ টাকা বলে হলফনামায় করা হয়েছে।

মনোনয়ন পত্রে নির্বাচন কমিশনকে জমা দেওয়া হলফনামায় বলা হয়েছে, প্রধানমন্ত্রীর আয়ের মূল উৎস, তাঁর বেতন এবং ব্যাঙ্কে জমানো অর্থেরসুদ।

এছাড়াও চলতি বছরের ৩১ মার্চের হিসাব অনুযায়ী, প্রধানমন্ত্রীর হাতে রয়েছে ৩৮ হাজার ৭৫০টাকা।

প্রধানমন্ত্রীর স্টেট ব্যাঙ্কের অ্যাকাউন্টে রয়েছে মাত্র ৪,১৪৩ টাকা। এছাড়া এসবিআই-এ একটি ফিক্সড ডিপোজিট করিয়েছিলেন মোদি। সেইস্থায়ী আমানত বা এফডি বেড়ে এখন ১.২৭ কোটি টাকা। ২০ হাজার টাকার সরকারি বন্ড ও ৭.৬১ লক্ষ টাকা এনএসসি-তেলগ্নি করেছেন তিনি।

এদিন তাঁর পেশ করা হলফনামায় উল্লেখ করা হয়েছে, ১.১৩ কোটি টাকা মূল্যের ৪টি সোনার আংটি রয়েছে প্রধানমন্ত্রীর। একটি জীবনবিমা রয়েছে, যার দাম ১.৯০ লক্ষটাকা। পিএমও অফিসের তরফে তিনি পান ১.৪০লক্ষ টাকা।

গাঁধী নগরে ২০০২সালে ১,৩০,৪৮৮ টাকায় একটিবাড়ি কিনে ছিলেন তিনি।বর্তমানে বাড়িটির বাজার দর ১.১০কোটি টাকা।আয়কর দফতরে তাঁর কোন ওদায়নেই, বরং৮৫,১৪৫টাকা আয়কর দফতর থেকে পাওনা রয়েছে তাঁর।

হলফনামা অনুযায়ী, প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর নামে কোনও রকম অপরাধমূলক মামলানেই।

তাঁর শিক্ষাগত যোগ্যতা সংক্রান্ত তথ্যে বলা হয়েছে, নরেন্দ্র মোদি ১৯৭৮ সালে দিল্লি বিশ্ববিদ্যালয় থেকে স্নাতকস্তরের পরীক্ষায়, গুজরাত বিশ্ববিদ্যালয় থেকে১৯৮৩সালে স্নাতকোত্তর পাশকরেন নরেন্দ্রমোদি।তথ্যসূত্র: আনন্দবাজার।

You might also like

advertisement