গ্রামীণফোনকে বাধ্য করা হবে বিটিআরসি

advertisement

শীর্ষ মোবাইল ফোন অপারেটর গ্রামীণফোনের কাছে সরকারের পাওনা সাড়ে ১২ হাজার কোটি টাকা পরিশোধ করতেই হবে বলে জানিয়েছেন বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশনের (বিটিআরসি) চেয়ারম্যান জহুরুল হক। তিনি বলেন, ‘এই টাকা আদায়ে যা যা করা দরকার তার সবই করবে বিটিআরসি। প্রয়োজনে তাদের লাইসেন্স স্থগিত করা হবে, কল ব্লক করে দেওয়া হবে। এমনকি তাদের এনওসি (নন অবজেকশন সার্টিফিকেট) দেওয়াও বন্ধ করে দেবে বিটিআরসি। সরকারের টাকা না দিয়ে তারা পার পাবে না।

গতকাল সোমবার টেলিকম রিপোর্টার্স নেটওয়ার্ক বাংলাদেশের (টিআরএনবি) সদস্যদের সঙ্গে মতবিনিময়ের সময় তিনি একথা বলেন। মতবিনিময় অনুষ্ঠানে টিআরএনবির সভাপতি মুজিব মাসুদ, সাধারণ সম্পাদক মাজহারুল আনোয়ার খান শিপুসহ কমিটি এবং সংগঠনটির সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন। এছাড়া বিটিআরসির কমিশনার, বিভিন্ন বিভাগের মহাপরিচালকসহ ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন।

সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে বিটিআরসি চেয়ারম্যান বলেন, ‘গ্রামীণফোন টাকা দিতে চায় না। এটা ওটা করে, কোর্টে যায়। এদিকে পাওনা টাকা বাড়তে থাকে। আমরা ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের সঙ্গে কথা বলেছি। কর্তৃপক্ষ আমাদের বলেছেন, ‘অ্যাজ পার ল’ যা হওয়ার তাই হবে। গ্রামীণফোন কী ভাবল, কী বলল তাতে কিছু আসে যায় না। আমরা টাকা পাওয়ার জন্য যা যা দরকার আইন অনুযায়ী তাই করবো। সবই করা হবে।

তিনি আরো বলেন, ‘গ্রামীণফোনের কাছে পাওনা বিষয় যথেষ্ট সময় দেওয়া হয়েছে। অডিট প্রতিষ্ঠান একটি স্বতন্ত্র প্রতিষ্ঠান। এটা মাথায় রাখতে হবে। গ্রামীণফোন শুধু কোর্টে গিয়ে সময় নিচ্ছে। কোর্ট সময় দিলে তা আমাদের মানতে হবে। তবে টাকা দিতেই হবে। গ্রামীণফোন বিভিন্ন সময় বিভিন্ন ব্যাখ্যা দেয়। শুধু টাকা দিতে চায় না। সময় নিচ্ছে। গ্রামীণফোনকে সময় ও সুবিধা দেওয়াসহ যা দরকার সবই দেবো। তারপরও যদি আমরা টাকা না পাই সেক্ষেত্রে বিটিআরসি আইনে যেসব ক্ষমতা দিয়েছে সে অনুযায়ী পদক্ষেপ নেবো।

You might also like

advertisement