মরুভূমির প্রচণ্ড গরমে প্রাণীরা

advertisement

বিশ্বের বৃহত্তম মরুভূমি সাহারা। এই মরুভূমিতে সাপ, গিরগিটি, খেঁকশিয়ালের মতো বহু প্রাণী রয়েছে। মরুভূমির অন্যতম প্রাণী উট। একে মরুভূমির জাহাজও বলা হয়। মরুভূমিতে ৭০ প্রজাতির স্তন্যপায়ী, ৯০ প্রজাতির পাখি এবং ১০০ প্রজাতির সরীসৃপ এবং কিছু আথ্রোপোডা পর্বের প্রাণীর বসবাস সাহারায়।

গরম, শুষ্ক এবং অনুর্বর এই মরুভূমি জীবনের জন্য কঠিন এক জায়গা। মরুভূমির বুকে প্রচণ্ড গরমে প্রাণীদের বেঁচে থাকার বিষয়টি স্বাভাবিকভাবেই বিস্মিত করে। মরুভূমির প্রাণীরা বেশ স্বাচ্ছন্দ্যের সঙ্গেই বেঁচে আছে সেখানে। মরুভূমির এই তীব্র গরমে টিকে থাকার জন্য এসব প্রাণীর বিশেষ স্বভাব গড়ে উঠেছে। ‘র্যাটল স্নেক’, ‘জ্যাক র্যাবিট’সহ অন্য কিছু প্রাণী সকাল এবং সন্ধ্যায় সক্রিয় হয়ে ওঠে। দিনের প্রচণ্ড গরম থেকে বাঁচতে এরা এদের অপেক্ষাকৃত ঠান্ডা জায়গায় লুকিয়ে রাখে। অন্যদিকে বাদুড়, খেঁকশিয়ালের মতো প্রাণীরা রাতের বেলা সক্রিয় হয়ে ওঠে। খাবারের সন্ধানে এরা রাতের বেলা বাইরে বের হয়।

টার্কি শকুন এবং কালো শকুনরা শরীরের তাপমাত্রা ঠিক রাখতে নিজেদের পায়ের ওপর প্রস্রাব করে। ক্যাঙ্গারু ইঁদুর গরমের হাত থেকে বাঁচতে দিনের উল্লেখযোগ্য সময় গর্তের মধ্যে লুকিয়ে থাকে। সংগ্রহ করা বিভিন্ন ধরনের বীজ থেকে পানি সংগ্রহ করে ক্যাঙ্গারু ইঁদুররা। ‘গিলা’ দানব নামের এক ধরনের প্রাণী নিজেদের থলিতে পানি জমিয়ে রাখে। -ন্যাশনাল জিওগ্রাফিক

You might also like

advertisement