ব্রাসেলস যাচ্ছেন বৈঠক করতে পম্পেও

advertisement

মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেও ইরানসহ বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ বিষয়ে আলোচনা করতে সোমবার ব্রাসেলস যাচ্ছেন। মার্কিন পররাষ্ট্র দপ্তরের এক কর্মকর্তা রবিবার একথা জানান। খবর এএফপি’র।

এর ফলে যুক্তরাষ্ট্রের এ শীর্ষ কূটনীতিকের সোমবার মস্কোতে যাওয়ার কথা থাকলেও ওইদিন তিনি আর যাচ্ছেন না।

পম্পেও’র ওয়াশিংটন ত্যাগের আগ মুহূর্তে ওই কর্মকর্তা আরো জানান, তবে তিনি রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন ও পররাষ্ট্রমন্ত্রী সের্গেই লাভরভের সঙ্গে সাক্ষাত করতে মঙ্গলবার দেশটির কৃষ্ণ সাগর অবকাশ কেন্দ্র সোচি সফর করবেন।

সোমবার ব্রাসেলসে ইউরোপীয় ইউনিয়নের পররাষ্ট্র বিষয়ক পরিষদের বৈঠকের কথা থাকলেও মার্কিন পররাষ্ট্র দপ্তর পম্পেও’র সংশোধিত কর্মসূচির ব্যাপারে বিস্তারিত কিছু জানায়নি।

তারা কেবলমাত্র জানিয়েছে, ফ্রান্স, যুক্তরাজ্য ও জার্মানির সাথে আলোচনা করা হবে। ইউরোপীয় এ তিন দেশ ২০১৫ সালে করা ইরান পরমাণু চুক্তিতে স্বাক্ষর করে।

এ চুক্তি থেকে যুক্তরাষ্ট্র বের হয়ে যাওয়ার এক বছর পর গত ৮ মে ইরান ঘোষণা দেয় যে তারাও চুক্তির আওতায় করা তাদের কিছু প্রতিশ্রুতি স্থগিত রাখবে।

প্রেসিডেন্ট হাসান রুহানি ইউরোপীয় ইউনিয়নকে চূড়ান্ত শর্ত দিয়ে হুঁশিয়ার করে দিয়েছে, আগামী ৬০ দিনের মধ্যে ইরানের অর্থনীতির ওপর মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের পুনঃনিষেধাজ্ঞার পাল্টা ব্যবস্থা হিসেবে অবরোধ শিথিল করাতে তারা ব্যর্থ হলে তেহরান এমন আরো পদক্ষেপ নেবে।

তবে ইউরোপের ক্ষমতাধর দেশগুলো ইরানের এ আল্টিমেটাম প্রত্যাখান করেছে।

এদিকে ইরান অবিলম্বে হামলার পরিকল্পনা করছে পম্পেও এ অভিযোগ এনে তেহরানের ওপর মার্কিন চাপ অব্যাহত রাখার কথা বলেন।

পেন্টাগন শুক্রবার ঘোষণা দিয়েছে যে তারা ইরানের কথিত হুমকি মোকাবেলায় পাঠানো একটি রণতরীর শক্তি বাড়াতে মধ্যপ্রাচ্যে একটি উভগামী অ্যাসাল্ট শিপ ও একটি প্যাট্রিয়ট মিসাইল মোতায়েন করছে।

ইরান ইস্যুতে পম্পেও ইতিমধ্যে তার বার্লিন ও গ্রীনল্যান্ড সফর বাতিল করেছে।

You might also like

advertisement