বাঙালিকে কাঙালি’ বলায় চটেছেন মমতা

advertisement

সোনার বাংলা কাঙাল বাংলা হয়ে গেছে বলে কটাক্ষ করলেন অমিত শাহ। পশ্চিমবঙ্গের বারাসাতে এক জনসভায় বিজেপি সভাপতি এমন মন্তব্য করেন। রাজ্যের অন্য এক জনসভা থেকে তার কঠিন জবাব দেন পশ্চিম বঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দোপাধ্যায়। বললেন, এত বড় সাহস বাংলাকে কাঙাল বলছে।

অমিত শাহ বলেন, ‘সোনার বাংলাকে কাঙাল বাংলায় পরিণত করেছে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সরকার। নরেন্দ্র মোদী জনপ্রিয় হয়ে উঠবেন বলেই মমতা দিদি কেন্দ্রীয় প্রকল্প চালু করছেন না বাংলায়।’

বাংলায় সিন্ডিকেট শাসন চলছে মন্তব্য করে বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি বলেন, ‘বাংলায় আগে রবীন্দ্র সংগীত শোনা যেত। সেই বাংলায় এখন কলকারখানা নেই। শুধু বোমা তৈরির কারখানা তৈরি হয়েছে। আগে লাগত সিন্ডিকেট ট্যাক্স। এখন ভাতিজাকে ট্যাক্স দিতে হয়।’

পাল্টা বক্তব্যে মমতা বলেন, ‘একটা নেতা এসে বলে গেছে, মমতা বাংলাকে কাঙাল বানিয়ে দিয়েছে। কাঙালের মানে জানে? বাঙালিকে কাঙালিকে বলছে একটাও ভোট দেবেন না। এত বড় সাহস!’

অমিত শাহকে কটাক্ষ করে মমতা আরও বলেন, ‘মাথা মোটা লোক। নরেন্দ্র মোদীর রাইট হ্যান্ড অর্ধশিক্ষিত। মাথায় কিচ্ছু নেই। শুধু দাঙ্গা লাগাও। টাকা ঢেলে দাঙ্গা লাগিয়ে এসো।’

অমিতের ‘ভাতিজা ট্যাক্স’ কটাক্ষেরও জবাব দিয়েছেন মমতা। তিনি বলেন, ‘একটা লোকের দ্বারা দল চলে না। সংসারে মাকে সব দেখে রাখতে হয়। পরিবারের স্বামী থাকলেও স্ত্রীও থাকবেন। সবাইকে নিয়ে চলতে হয়।’

‘আমাদের পরিবারের সবাইকে চেনেন না। ইন্দিরা গান্ধী মারা গিয়েছিলেন। তখন আমি কংগ্রেস করতাম। ছাত্র রাজনীতিতে ছিলাম। ১৯৮০ সালে মিছিল হত। সিপিএম বলতো, পাড়া থেকে বেরোচ্ছে, কিন্তু ঢুকতে দেওয়া হবে না। ভাই-বোনেরা মিছিল করতাম। মা আঁঠা করে দিত পোস্টার মারব বলে। একমাত্র একটা ছেলে অভিষেক রাজনীতিতে এসেছে। তাতে এত গাত্র জ্বালা বিজেপির! এত হিংসুটে। ভাতিজা, ভাতিজা বলে গেল। আজকেও এখানে এসে বলে গেল। সারাক্ষণ পেছনে লাগে’-যোগ করেন মমতা।

You might also like

advertisement