নিউইয়র্কে মুক্তিযোদ্ধা মুকুল আর নেই

advertisement

নিউইয়র্কে বসবাসরত মুক্তিযোদ্ধা শামসুল আনোয়ার মুকুল আর নেই। স্থানীয় সময় বুধবার বিকাল ৫টায় নিউইয়র্কের মাউন্ট সিনাই হাসপাতালে তিনি শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন। তার বয়স হয়েছিল ৬৬ বছর। তিনি হৃদরোগে ভুগছিলেন।

পাবনা জেলার ঈশ্বরদীর সন্তান মুকুল মুক্তিযুদ্ধে বিএলএফ-এর প্রথম ব্যাচের (দেরাদুন) ছিলেন। তিনি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ফার্মেসি বিভাগের পড়াশোনা শেষ করেছেন।

মুক্তিযোদ্ধা মুকুলের পরিবারের সঙ্গে ঘনিষ্ঠজনেরা জানান, কয়েক মাস আগে হৃদরোগের চিকিৎসার জন্য মাউন্ট সিনাই হাসপাতালে ৫৬দিন ভর্তি ছিলেন মুকুল। সে সময় তাকে ৩টি স্ট্যান্ট লাগিয়ে দেওয়া হয়। ১০দিন আগে লাগানো হয় আরেকটি স্ট্যান্ট। দুদিন আগে হঠাৎ করে পা ফুলে যাওয়ায় বিচলিত মুকুল গত ১৪ মে চিকিৎসকের শরণাপন্ন হন। চিকিৎসা শেষ হবার আগেই ঢলে পড়েন মৃত্যুর কোলে।

কমিউনিটি অ্যাক্টিভিস্ট ও সাংবাদিক মুজাহিদ আনসারী জানান, মৃত্যুকালে মুক্তিযোদ্ধা মুকুল স্ত্রী ও দুই পুত্র রেখে গেছেন। স্ত্রী মাসুমা খাতুন ও বড় ছেলে আনোয়ার ফেরদৌস নিউইয়র্কে এবং ছোট ছেলে আনোয়ার ফয়সাল বাংলাদেশে থাকেন। প্রয়াত মুকুল আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুবুল আলম হানিফের খালাতো ভাই বলে পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে।

স্থানীয় সময় শুক্রবার জুম্মার নামাজের পর জ্যাকসন হাইটস মসজিদের সামনের সড়ক ৭৩ স্ট্রিটে মুক্তিযোদ্ধা মুকুলের নামাজে জানাজা অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা। সেখানে প্রবাসের মুক্তিযোদ্ধারা তাকে সর্বশেষ অভিবাদন শেষে নিউইয়র্ক বাংলাদেশ কনস্যুলেটের ব্যবস্থাপনায় মুক্তিযোদ্ধা মুকুলের লাশ বাংলাদেশে গ্রামের বাড়িতে পাঠানোর কথা রয়েছে।

মুক্তিযোদ্ধো মুকুলের মৃত্যুতে সেক্টর কমান্ডারস ফোরাম যুক্তরাষ্ট্র শাখার পক্ষ থেকে সভাপতি রাশেদ আহম্মেদ এবং সাধারণ সম্পাদক রেজাউল বারী বকুল গভীর শোক ও শোক সন্তপ্ত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জ্ঞাপন করেন।

You might also like

advertisement