এয়ার কানাডার মধ্য আকাশে গতি বিপত্তি, আহত ৩৫

advertisement

মধ্যাকাশে অনেকটা অনিয়ন্ত্রিত অস্বাভাবিক বায়ুমণ্ডলীয় গতির সম্মুখীন হয়েছে এয়ার কানাডা এয়ারলাইন্সের ২৮৪ আরোহীর একটি ফ্লাইট। এতে অন্তত ৩৫ আরোহী আহত হয়েছেন।

বৃহস্পতিবার (১১ জুলাই) অস্ট্রেলিয়ার সিডনিতে যাওয়ার উদ্দেশে কানাডার ভ্যাঙ্কুভার সিটি থেকে উড্ডয়নের পর সমুদ্র থেকে ৩৬ হাজার ফুট উপরে এ বিপত্তির ঘটনা ঘটে।

যাত্রীদের বরাত দিয়ে মার্কিন সংবাদমাধ্যম জানিয়েছে, হঠাৎ করে ফ্লাইটটি গতি বিপত্তিতে পড়ে। অনেকটা পাইলটের নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে গিয়েছিল। ঘন ঘন এদিক-ওদিক নড়াচড়া করে প্লেনটি উড়তে থাকে। এতে আরোহীদের কেউ প্লেনের ছাদে আঘাত পেয়ে, কেউ অন্য কিছুতে ধাক্কা খেয়ে গুরুতর আহত হয়েছেন।

এয়ারলাইন্স কর্তৃপক্ষ বলছে, বৃহস্পতিবার এয়ার কানাডা (এসি) ফ্লাইট-৩৩ কঠিন বিপদে পড়ে যায়। পরে প্লেনটি যুক্তরাষ্ট্রের হাওয়াই অঙ্গরাজ্যের হুনোলুলুর ড্যানিয়েল কে ইনওউই আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে জরুরি অবতরণ করাতে বাধ্য হন পাইলট।

প্লেনটিতে ২৬৯ জন যাত্রী ছিলেন। ১৫ জন ক্রু ছিলেন। তাদের মধ্যে ৩৫ জন আহত হয়েছেন বলে জানিয়েছে এয়ার কানাডা।

ওয়াশিংটনের ফেডারেল অ্যাভিয়েশন অ্যাডমিনিস্ট্রেশনের মুখপাত্র ইয়ান গ্রেগর জানিয়েছেন, প্লেনটি যখন অস্বাভাবিক বা রুক্ষ বায়ুমণ্ডলীয় গতির মুখে পড়ে, তখন এটি ৩৬ হাজার ফুট উপর দিয়ে উড়ছিল। এছাড়া প্লেনটি হুনোলুলু থেকে প্রায় ৬০০ মাইল দক্ষিণ-পশ্চিমে ছিল।

You might also like

advertisement