বৃষ্টি থাকবে আরো কয়েকদিন

advertisement

শুক্রবার (১২ জুলাই) সাপ্তাহিক ছুটির দিন হওয়ায় শহরে যানজট কম থাকলেও বিভিন্ন এলাকায় বর্ষাকালের খোঁড়াখুঁড়ির কারণে পানি জমা পথে চলাচল করতে সমস্যা হচ্ছে। সকাল থেকে শুরু হওয়া বৃষ্টিপাতে রামপুরা, বনানী-১১, মিরপুর-১০, শেওড়াপাড়া, কাজীপাড়া, মিরপুর-১৩ ও সেনানিবাস এলাকাসহ অনেক জায়গার রাস্তা গোড়ালি সমান পানির নিচে চলে গেছে। মানুষজনকে নোংরা পানি ডিঙিয়ে গন্তব্যে যেতে দেখা গেছে।

রাজধানীর বিভিন্ন এলাকা ঘুরে দেখা যায়, উন্নয়ন কাজের জন্য বেহাল রাস্তায় ছোটখাটো দুর্ঘটনাও ঘটছে। এর মধ্যে গণপরিবহন কম থাকায় চরম আকার ধারণ করে মানুষের দুর্ভোগ।

সকাল থেকে শুরু হওয়া বৃষ্টিতে রামপুরা, বনানী-১১, মিরপুর-১০, শেওড়াপাড়া, কাজীপাড়া, মিরপুর-১৩ ও সেনানিবাস এলাকাসহ অনেক জায়গার রাস্তায় হাঁটু সমান পানির নিচে তলিয়ে গেছে। আবার কোথাও কোথাও এর থেকেও বেশি পানি জমেছে। এ সময় নোংরা পানি ডিঙিয়ে নগরবাসীকে গন্তব্যে যেতে দেখা গেছে।

রাস্তা সংস্কার ও মেট্রো রেলের মতো উন্নয়ন কাজ চলমান থাকায় মালিবাগ ও রোকেয়া সরণির মতো এলাকায় অবস্থা সবচেয়ে খারাপ। এসব এলাকার বাসিন্দাদের দুর্ভোগ চরমে পৌঁছেছে।

এমতাবস্থায় আগামী দু-তিন দিন বৃষ্টি থাকবে বলে জানিয়েছে আবহাওয়া অফিস। তাছাড়া আষাঢ় মাস হওয়ায় পুরো জুলাই মাসে বৃষ্টিপাত হবে। শুক্রবার (১২ জুলাই) দুপুর দুটা পর্যন্ত ঢাকায় ৪৯মিলি মিটার বৃষ্টিপাত রেকর্ড করেছে আবহাওয়া অফিস। চট্টগ্রাম ও উত্তরের বিভাগগুলোতে এর পরিমাণ ১০০ মিলিমিটার।

তবে সবচেয়ে বেশি বৃষ্টিপাত রেকর্ড করা হয়েছে রাঙ্গামাটিতে ১৯০ মিলি মিটার। উজানে ঢল না কমলে এবং বৃষ্টিপাত হলে বন্যা পরিস্থিতি সৃষ্টি হওয়ার পূর্বাভাস দিয়েছে আবহাওয়া অফিস।

আবহাওয়াবিদ আব্দুর রহমান বলেন, বৃষ্টিপাত আরও দুই থেকে তিনদিন থাকবে। জুলাই মাস বর্ষা মৌসুম আর আমাদের দেশে এখন মৌসুমি বায়ু চলছে। এই সময়ে বাংলাদেশ সবচেয়ে বেশি বৃষ্টির পরিমাণ রেকর্ড হয়ে থাকে।

You might also like

advertisement