ভারী বৃষ্টিতে পানির নিচে রাজধানীর রাস্তা

advertisement

টানা বৃষ্টিতে পানির নিচে তলিয়ে গেছে রাস্তা। ফুটপাতেও হাঁটু পানি। এর সঙ্গে মিশেছে নর্দমা আর ম্যানহোলের উপচানো পানির সাথে নগরের সব ময়লা। এই গা-ঘিনঘিনে পানি কোথাও হাঁটু অবধি, কোথাও বা কোমর ছুঁই ছুঁই। পানি দেখে অনেক এলাকায় যেতেই রাজি নয় রিকশা চালকরা। সিএনজি তো রাস্তার মাঝেই বিকল হয়ে পড়ছে। আর যাঁরা বাসে উঠেছেন তারা ঘণ্টার পর ঘণ্টা যানজটে বসে ডুবে যাওয়া রাস্তা দেখেছেন। টানা নয় ঘণ্টার বর্ষণে রাজধানীর রাজপথে এভাবেই চরম ভোগান্তিতে পড়তে হয়েছে রাজধানীবাসীকে।

শুক্রবার সাপ্তাহিক ছুটির দিন হওয়ায় শহরে যানজট কম থাকলেও বিভিন্ন এলাকায় বর্ষাকালের খোঁড়াখুঁড়ির কারণে পানি জমা পথে চলাচল করতে সমস্যা হচ্ছে। সকাল থেকে শুরু হওয়া বৃষ্টিপাতে রামপুরা, বনানী-১১, মিরপুর-১০, শেওড়াপাড়া, কাজীপাড়া, মিরপুর-১৩ ও সেনানিবাস এলাকাসহ অনেক জায়গার রাস্তা গোড়ালি সমান পানির নিচে চলে গেছে। মানুষজনকে নোংরা পানি ডিঙিয়ে গন্তব্যে যেতে দেখা গেছে।

রাজধানীর বিভিন্ন এলাকা ঘুরে দেখা যায়, উন্নয়ন কাজের জন্য বেহাল রাস্তায় ছোটখাটো দুর্ঘটনাও ঘটছে। এর মধ্যে গণপরিবহন কম থাকায় চরম আকার ধারণ করে মানুষের দুর্ভোগ।

আজ সকাল থেকে শুরু হওয়া বৃষ্টিতে রামপুরা, বনানী-১১, মিরপুর-১০, শেওড়াপাড়া, কাজীপাড়া, মিরপুর-১৩ ও সেনানিবাস এলাকাসহ অনেক জায়গার রাস্তায় হাঁটু সমান পানির নিচে তলিয়ে গেছে। আবার কোথাও কোথাও এর থেকেও বেশি পানি জমেছে। এ সময় নোংরা পানি ডিঙিয়ে নগরবাসীকে গন্তব্যে যেতে দেখা গেছে।

রাস্তা সংস্কার ও মেট্রো রেলের মতো উন্নয়ন কাজ চলমান থাকায় মালিবাগ ও রোকেয়া সরণির মতো এলাকায় অবস্থা সবচেয়ে খারাপ। এসব এলাকার বাসিন্দাদের দুর্ভোগ চরমে পৌঁছেছে।

নিম্ন-আয়ের মানুষ, বিশেষ করে দিনমজুররা সবচেয়ে খারাপ অবস্থায় পড়েছেন। বৃষ্টির কারণে তাদের স্বাভাবিক কর্মজীবন থেমে গেছে। বেশিরভাগই খারাপ আবহাওয়ার মুখে ঘর থেকে বের হতে পারেননি।

আজ সকাল ৯টা থেকে পরবর্তী ২৪ ঘণ্টার আবহাওয়ার পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, মৌসুমি বায়ু অক্ষের বর্ধিতাংশ রাজস্থান, হরিয়ানা, উত্তর প্রদেশ, বিহার, পশ্চিমবঙ্গ ও বাংলাদেশের উত্তরাঞ্চল হয়ে আসাম পর্যন্ত বিস্তৃত রয়েছে।

এর একটি বর্ধিতাংশ উত্তর বঙ্গোসাগর পর্যন্ত বিস্তৃত রয়েছে। মৌসুমি বায়ু বাংলাদেশে সক্রিয় এবং উত্তর বঙ্গোসাগরে মাঝারি অবস্থায় বিরাজ করছে।

ঢাকা, ময়মনসিংহ, রাজশাহী, রংপুর, খুলনা, বরিশাল, চট্টগ্রাম ও সিলেট বিভাগের অধিকাংশ জায়গায় অস্থায়ী দমকা হাওয়াসহ হালকা থেকে মাঝারি ধরনের বৃষ্টি অথবা বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে। সেই সঙ্গে দেশের কোথাও কোথাও মাঝারি ধরনের ভারি থেকে অতি ভারি বর্ষণ হতে পারে।

You might also like

advertisement