বাগদান সারলেন আফ্রি সেলিনা

advertisement

ওম্যান্স ওয়ার্ল্ড’-এর ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসেডর হিসেবে ২০১১ সালে শোবিজে যাত্রা শুরু করেছিলেন আফ্রি সেলিনা। এরপর মডেলিং ও অভিনয় নিয়ে সমানতালে ব্যস্ত রেখেছেন নিজেকে। ছোট পর্দা ছাপিয়ে বড় পর্দাতেও অভিনয় করেছেন তিনি। এখন ব্যস্ত রয়েছেন আসছে ঈদের বেশ কিছু নাটক ও মিউজিক ভিডিও নিয়ে।

নতুন খবর হলো- সম্প্রতি বাগদান সারলেন এই মডেল ও অভিনেত্রী। শুক্রবার (১২ জুলাই) রাতে রাজধানীর বসুন্ধরার নিজ বাসায় এক ঘরোয়া আয়োজনে দুই পরিবারের সম্মতিতে আংটি বদল হয়। পাত্র হৃদয় খান পেশায় একজন ব্যবসায়ী। ছেলের বাড়ি কুমিল্লা হলেও তারা স্ব-পরিবারে ঢাকায় থাকেন। পাত্রের সঙ্গে বেশ অনেকদিন ধরেই আফ্রির পরিচয়। তাদের মধ্যে বেশ ভালো একটা জানাশোনা ছিল প্রায় নয় বছর ধরে। আফ্রির মায়ের পছন্দেই অবশেষে তাদের চার হাত এক হল।

আফ্রি বলেন, আমার মায়ের পছন্দেই সবকিছু হয়েছে। তবে ছেলেকে আমি অনেকদিন ধরেই চিনি। আমার মা যখন অসুস্থ ছিলেন অনেকদিন তখন সে আমাদের পাশে এসে দাঁড়িয়েছিলেন। তখন থেকেই তার প্রতি আমার মায়ের একটা ভালো লাগা তৈরি হয়েছে। মায়ের ইচ্ছাকেই আমি সম্মতি দিয়েছি।

এখন সবেমাত্র মাত্র আংটি বদল হয়েছে। তবে আমরা দুজন নিজেদেরকে আরও একটু সময় দিতে চেয়েছি। যার কারণে বিয়ের জন্য একটু সময় নিচ্ছি। চলতি বছরের শেষের দিকে নয়তো আগামী বছরের মাঝামাঝি সময়ে বিয়ের কাজটা সম্পন্ন হবে। তখন অনুষ্ঠান করে সবকিছু হবে।

প্রসঙ্গত, ২০১১ সালে নাঈম তালুকদারের নির্দেশনায় ওপার বাংলার ইন্দ্রনীলের বিপরীতে ‘অন্যপথ’ চলচ্চিত্রে প্রথমবারের মত অভিনয় করেন। এরপর মনিরুল ইসলাম সোহেলের ‘স্বপ্ন যে তুই’ ও কলকাতার ‘স্মৃতিমালা’ চলচ্চিত্রে অভিনয় করেছেন। মুক্তির অপেক্ষায় আছে আফ্রি অভিনীত ইদ্রিস হায়দার পরিচালিত ‘নীল ফড়িং’ চলচ্চিত্রটি। আশা করা যাচ্ছে আগামী কোরবানির ঈদে আফ্রি অভিনীত এ ছবিটি মুক্তি পাবে। এছাড়া এখন পুরোদমে ব্যস্ত রয়েছেন ছোট পর্দার কাজ নিয়ে। আসছে ঈদে বেশ কিছু নাটকের কাজ শেষ করেছেন, হাতে রয়েছে আরও বেশ কিছু কাজ।

You might also like

advertisement