স্বামীর অনুমতি ছাড়াই দেশত্যাগে করতে পারবে

advertisement

সৌদি আরবের নারীরা কোনো পুরুষের অনুমতি ছাড়াই দেশের বাইরে সফরের সুযোগ পেতে যাচ্ছেন। এ বছরই অভিভাবকত্ব আইনে এ পরিবর্তন আসতে যাচ্ছে বলে ওয়ালস্ট্রিট জার্নালকে জানিয়েছেন সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা।

অতীতে বিদেশ সফরের জন্য সৌদির স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় থেকে নারীদেরকে তাদের বাবা, স্বামী বা অন্য কোনো পুরুষ আত্মীয়ের সই আনার জন্য একটি সম্মতিপত্র সরবরাহ করা হতো। সম্প্রতি এ সংক্রান্ত একটি অ্যাপই চালু করেছে সরকার। সেখানে স্মার্টফোন থেকেই পুরুষরা পরিবারের নারীটির বিদেশ সফরের অনুমতি দিতে পারেন বা অসম্মতি জানাতে পারেন।

সৌদি সাম্রাজ্যের বর্তমান ‘অভিভাবকত্ব’ আইনের অধীনে দেশটির যে কোনো বয়সের নারীকেই দেশের বাইরে সফর, এমনকি পাসপোর্ট বানানোর জন্যও একজন পুরুষ আত্মীয়ের আনুষ্ঠানিক সম্মতির প্রয়োজন।

চলমান সংস্কারের অংশ হিসেবে ইতোমধ্যে কঠোর রক্ষণশীল দেশ সৌদি আরবে নারীরা গাড়ি চালানোরও অনুমতি পেয়ে গেছেন। এবার সেই সংস্কারের সম্প্রসারিত রূপ হিসেবে একা দেশত্যাগের অনুমতিও যোগ হতে যাচ্ছে।

তবে অভিভাবকত্ব আইনের অন্যান্য ধারাগুলো অপরিবর্তিতই থাকছে বলে জানানো হয়েছে সরকারের পক্ষ থেকে। অর্থাৎ একজন নারীকে বিয়ে করা বা কারাগার ত্যাগের জন্য এখনও একজন পুরুষের অনুমতি পেতে হবে।

You might also like

advertisement